Monday , October 15 2018
Breaking News

দুইদিনে অসম্ভব সুন্দরী হয়ে যাবার উপায়!

সুন্দরী ও রূপবতী হতে কে না চায়? তবে এতে কষ্টের ও অভাব নেই। আবার অনেকসময় তা ব্যয়বহুল হয়েও দাঁড়ায়। কিন্তু এবার খুব সহজ ও স্বচ্ছল উপায় নিয়ে আমরা হাজির হয়েছি আপনাদের কাছে। আসুন জেনে নেয়া যাক সে উপায়গুলো-

১) বিশেষজ্ঞদের মতে নিয়মিত ত্বকের পরিচর্যায় আমলাকে কাজে লাগালে ত্বক তো পরিষ্কার হয়ই, সেই সঙ্গে স্কিন হয়ে ওঠে তুলতুলে এবং প্রাণবন্ত। এক্ষেত্রে ২ চামচ আমলা পাউডারের সঙ্গে পরিমাণ মতো গরম জল মেশাতে হবে। তারপর তাতে ১ চামচ মধু এবং দই মিশিয়ে সবকটি উপাদানকে ভাল করে নাড়িয়ে নিতে হবে। এরপর পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কম করে ১০-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে সময় হয়ে গেলে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।

২) বেশ কিছু স্টাডিতে একথা প্রমাণিত হয়ে গেছে যে অল্পদিনে ত্বককে ফর্সা করে তুলতে এই প্যাকটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। এখন প্রশ্ন হল কীভাবে বানাতে হবে এই ফেসমাস্কটি? এক্ষেত্রে ২ চামচ আমলা গুঁড়োর সঙ্গে পরিমাণ মতো গরম জল মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর তাতে ২ চামচ পেঁপে মেশাতে হবে। সবশেষে পেস্টটি মুখে লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এই সময় পেঁপের অন্দরে থাকা উপকারি এনজাইম ত্বকের অন্দরে প্রবেশ করে এমন খেল দেখাবে যে স্কিন টোনের উন্নতি তো ঘটবেই, সেই সঙ্গে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি পাবে চোখে পরার মতো।

৩) হাজারো চেষ্টার পরেও পক্স এবং ব্রণর দাগ মেলায়নি? কোনো চিন্তা নেই! আজ থেকেই আমলাকি এবং হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে বানানো ফেসপ্যাক মুখে লাগাতে শুরু করুন। দেখবেন দাগ মিলিয়ে যেতে শুরু করেছে। সেই সঙ্গে আমলকি এবং হলুদের গুণে ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে চোখে পরার মতো।

প্রসঙ্গত, এই প্যাকটি বানাতে প্রয়োজন পরবে ৩ চামচ আমলা পাউডার, ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং ২ চামচ লেবুর রসের। সবকটি উপাদান মিশিয়ে নেওয়ার পর পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কম করে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা। সপ্তাহে কম করে একবারও যদি এইভাবে ত্বকের পরিচর্যা করা যায়, তাহলে ফল মিলবে একেবারে হাতেনাতে!