Saturday , May 26 2018
Breaking News

‘মা’ সিরিয়ালের জন্য সবাই বুবলী নামেই ডাকে : প্রিয়াংকা

স্টার জলসার মেগা সিরিয়াল ‘মা’ দুই বাংলাতেই বেশ জনপ্রিয়। এই সিরিয়ালের বুবলী নামটির সঙ্গে সবাই বেশ পরিচিত। যিনি এই সিরিয়ালে ঝিলিকের ননদ (নেগেটিভ) চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি হচ্ছেন কলকাতার প্রিয়াংকা ভট্টাচার্য। নিজের অভিনয় দক্ষতা, সাম্প্রতিক ব্যস্ততা ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে জাগো নিউজের শোবিজে কথা বললেন তিনি। তাকে নিয়ে লিখেছেন ইমরুল নূর-

বর্তমান ব্যস্ততা সম্পর্কে জানতে চাই

প্রিয়াংকা : এখন পড়াশোনা নিয়ে খুব চাপ যাচ্ছে। পড়াশোনার চাপে অভিনয়েও মনোযোগী হতে পারছি না। পাশাপাশি জিমেও সময় দিতে হচ্ছে।

আপনার অভিনীত কাজগুলো সম্পর্কে বলেন…

প্রিয়াংকা : অনেকগুলো সিরিয়ালে কাজ করেছি। আমার প্রথম সিরিয়াল হলো আকাশ বাংলা চ্যানেলের ‘আমাদের বাড়ি’। এরপর পরিচয়, বিসর্জন, মা, সতীন কাঁটা, সাথী, তুমি আসবে বলে, অগ্নিজাল, জয় কালী কলকাতাওয়ালি সিরিয়ালে কাজ করে প্রশংসিত হয়েছি। তবে ‘ম ‘ সিরিয়ালটা আমাকে ব্রেক দিয়েছে। এটা দিয়ে আমি খুব দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছি। আমাকে সবাই বুবলী নামেই চেনে বেশি এই সিরিয়ালের জন্য। এছাড়া ‘তুমি আসবে বলে’ সিরিয়ালটিও বেশ জনপ্রিয়তা দিয়েছে আমাকে।

অভিনয়ের শুরুটা কিভাবে?

প্রিয়াংকা : কোনোদিন ভাবিনি অভিনয় করবো। প্রায় ৮ বছর আগে ‘ডান্স বাংলা ডান্স’র উপস্থাপকের উপস্থাপনা দেখে বেশ ভালো লাগতো। তারমতো হতে চাইতাম। এরপর একটি ইনস্টিটিউটে অভিনয়ের জন্য ভর্তি হই। দুই মাসের মধ্যেই সিরিয়ালে অভিনয়ের জন্য ডাক আসে। এরপর থেকেই অভিনয়ে নিয়মিত হতে শুরু করি।

এখন স্টারডম কেমন উপভোগ করেন?

প্রিয়াংকা : অবশ্যই দারুণ। কিন্তু কখনো কখনো মনে হয় পাবলিক প্লেইসে নিজের স্বাধীনতাটা থাকে না। কিছু কিছু সময় খারাপও লাগে। তবে বেশ উপভোগ করি। যেখানেই যাই লোকে চিনছে, ছবি তুলতে চাইছে, প্রশংসা করছে- খুব ভালো লাগে।

অভিনয়ের ক্ষেত্রে পরিবারের সাপোর্ট কেমন?

প্রিয়াংকা : আমার কাজে সবসময় আমার বাবা-মায়ের সাপোর্ট ছিল এখনো আছে। উনারাই আমার কনফিডেন্ট।

আপনি চলচ্চিত্রে নিয়মিত নন কেন?

প্রিয়াংকা : ধীরে ধীরে নিয়মিত হতে চাই। বেশকিছু স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করেছি। সেই সাথে প্রথমবারের মত একটি কমার্শিয়াল চলচ্চিত্রেও কাজ করেছি। শুটিং ডাবিংসহ প্রায় সকল কাজই সম্পন্ন। খুব শীঘ্রই ছবিটি মুক্তি পাবে। এটি সফল হলে নিয়মিত হবো।

এপার বাংলাতেও আপনার জনপ্রিয়তা আছে। জানেন?

প্রিয়াংকা : অবশ্যই। বাংলাদেশের অনেকেই কলকাতায় আসেন। তারাও আমাকে বুবলী নামে চেনেন দেখে অবাক লাগে। তাছাড়া ওপারের অনেক শিল্পীরাও এখানে নিয়মিত কাজ করছেন। অনেকের সঙ্গে সখ্যতাও আছে আমার। তাদের সঙ্গ ভীষণ ভালো লাগে। ওরা খুব সাপোর্টিভ। বাংলাদেশেও আমাদের এখানকার অনেকেই কাজ করছেন নিয়মিতই। সুযোগ হলে আমিও কাজ করতে চাই। একই ভাষা, জীবনযাপন, সংস্কৃতিতেও খুব একটা পার্থক্য নেই। আশা করি ভালো অভিজ্ঞতা হবে।