Saturday , September 22 2018
Breaking News

১২ জন অভিনেত্রী যারা প্রকাশ্যে নির্যাতিত হয়েছে, দেখুন ছিবিতে

তাঁরা আর পাঁচজন সাধারণ মহিলাদের মত নয়। তাঁদের জন্য পুলিসি প্রহরা থাকে, নিরাপত্তরক্ষী, বডিগার্ড, বাউন্সারও থাকে। কিন্তু এরপর এদের ওপর শ্লীলতাহানী করা হয়। দেখুন এমন এক ডজন মহিলা সেলেবদের যারা শ্লীলতাহানীর শিকার হয়েছেন-

১২) ক্যাটরিনা কাইফ

দক্ষিণ কলকাতায় দূর্গাপুজোর উদ্বোধনে এসে তাঁকে নিয়ে জনতাদের মধ্যে এত উত্সাহ দেখা যায়, যে তাঁর নিরাপত্তারক্ষী, পুলিস মানুষের ভালবাসার অত্যাচার করতে পারেনি। ক্যাটকে একবার ছুঁয়ে দেখতে হুড়মড়িয়ে পড়ে মানুষ। কোনওরকমে ক্যাটকে সেখান থেকে বের করে আনা হয়।

১১) জেরিন খান

অকসর টু সিনেমার প্রচারে গিয়ে রাজধানী শহর দিল্লিতে শ্লীলতাহানির শিকার হতে হয় অভিনেত্রী জেরিন খানকে। সেই সময়ে ছবির প্রচারের জন্য এমন একটি জায়গায় গিয়েছিলেন জারিন, যখন তাঁর চারপাশে পর্যাপ্ত নিরাপত্তারক্ষী ছিল না। ফলে চারপাশের জনতা একেবারে ঘিরে ফেলে জারিনকে। সেই দলে ছিল প্রায় ৪০-৫০ জন। তারা জারিনকে ঘিরে ধরে সেলফি তুলতে চায়। আশপাশে থাকা একজনও পুরুষ সদস্য এই সময়ে নায়িকাকে বাঁচাতে আসেননি বলে অভিযোগ করেন তিনি। পরিস্থিতি একেবারেই হাতের বাইরে চলে গিয়েছিল বলে জানা যায়। কোনও মতে উদ্ধার পান জারিন। ওই সংবাদমাধ্যমকে জারিন জানিয়েছেন, ‘‘আমি অত্যন্ত বিরক্ত হয়েছি ওদের আচরণে। এর পরই সিদ্ধান্ত নিই সমস্ত কাজ সেরে গভীর রাতের উড়ান ধরেই মুম্বইয়ে ফিরে আসার।’’

১০) শুভশ্রী

ফালাকাটার একটি কলেজের বাৎসরিক অনুষ্ঠানে শুভশ্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী আসার খবরে সকলের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ দেখা দেয়। দুপুর থেকে চলছিল সঙ্গীতানুষ্ঠান। কিন্তু সকলেই অপক্ষোয় ছিলেন শুভশ্রীর। নিরাপত্তার জন্য প্রচুর পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছিল। বিকাল সাড়ে পাঁচটায় শুভশ্রীর গাড়ি কলেজে পৌঁছালে একদল যুবক তাকে ঘিরে ধরে। অনেকে ছুঁতেও চেষ্টা করেন এ অভিনেত্রীকে। সময়ের সাথে সাথে বাড়তে থাকে ভিড়। নিরাপত্তার দ্বায়িত্বে থাকা পুলিশ চেষ্টা চালালেও ভিড় থেকে নায়িকাকে উদ্ধার করতে পারেনি। বরং একদল যুবকের হয়রানির শিকার হন শুভশ্রী। যতক্ষণে মূল মঞ্চে উঠতে পেড়েছেন তখন পুরোপুরি বিপর্যস্ত দেখা গেছে শুভশ্রীকে।

এরপর মঞ্চে উঠে শুভশ্রী বলেন, ‘আমি মেয়েদের বিশেষ করে বলতে চাই, ছেলেরা আমার সঙ্গে ভীষণ বাজে ব্যবহার করেছে। আমার সঙ্গে যেটা হয়েছে তা কোনো মেয়ের সঙ্গে করা উচিত নয়। এর জন্য আমার মানসিক অবস্থা ভালো নয়।’

৯) করিনা কাপুর

২০১৩ সালে এক শপিং মলের উদ্বোধনে গিয়ে একদল জনতা তাঁর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। করিনার বাউন্সার কোনওমতে সেখান থেকে উদ্ধার করে।

৮) হেদিয়া খান

এই ইজিপশিয়ান গায়িকা স্টেজে গান করার পর গাড়িতে ওঠার পথে তাঁকে ঘিরে ধরে একদল জনতা। তাঁর নিরাপত্তারক্ষীকে ঠেলে সরিয়ে ধরে তাকে জড়িয়ে ধরে চলে শ্লীলতাহানী। সেই শ্লীলতাহানীকে কার্যত ধর্ষণের পর্যায়ে ফেলা যায়।

৭) সোনাক্ষি সিনহা

তখন সবে বলিউডে পা দিয়েছিলেন। ঘটনাটা ২০১০ সালে তাঁর প্রথম সিনেমা দাবাংয়ের পর তিনি যান দক্ষিণ মুম্বইয়ের গান্ধী গ্রাউন্ডে এক অনুষ্ঠানে। কিন্তু সেখানে একদল উচ্ছশৃঙ্খল জনতা তাঁকে কটুক্তি করে, তারপর তাঁকে ছুঁতে ঝাপিয়ে পড়ে। চোখে জল নিয়ে অনুষ্ঠান মঞ্চ ছাড়েন সোনাক্ষি।

৬) সোনম কাপুর

২০১৩ সালে রঞ্ঝনা সিনেমা মুক্তির পর নিজের সিনেমা সাধারণ দর্শকদের সঙ্গে দেখতে সিনেমা হলে যান অনিল কাপুর কন্যা সোনম। কিন্তু সেখানে কিছুক্ষণ পরেই তাঁর ভক্তরা এমনভাবে তাকে ঘিরে ধরে যাতে তাকে শ্লীলতাহানির শিকার হতে হয়। সোনমকে আড়াল করতে চাওয়ায় সিনেমার নায়ক ধনুষের মুখে ঘুষিও চালানো হয়। শেষ অবধি অবশ্য হিরো সুলভ কায়দায় ধনুষই সোনমকে উদ্ধার করেন।

৫) আমিশ প্যাটেল

গোরক্ষপুরে এক জুয়েলারি শপের উদ্বোধনে যান ‘কহো না প্যায়ার হ্যায়’ সিনেমার নায়িকা আমিশা প্যাটেল। আমিশা শর্ট স্কার্ট পরেছেন এই কারমে তাঁকে চড় মারেন এক ব্যক্তি। আমিশা সেখানেই কেঁদে ফেলেন।

৪) সুস্মিতা সেন

পুণেতে এক জুয়েলারি শপের উদ্বোধনে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার হন সুস্মিতা সেন। উদ্বোধ

উদ্বোধন সেরে গাড়িতে ওঠার সময় সুস্মিতার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল একদল তরুণ।

৩) বিপাশা বসু

বিপাশাকে দু বার প্রকাশ্যে শ্লীলতাহানির শিকার হতে হয়। দুর্গাপুজোর উদ্বোধনে একদল মানুষ ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন বিপাশার উপর। তারপর আমেদাবাদে রাজ থ্রি-র প্রচারে গিয়ে বিপাশার স্কার্ট ধরে টানেন এক ব্যক্তি।

২) গুল পানাং

দিল্লি ম্যারাথনে দৌড়নোর সময় গুল পানাংকে ছুঁতে তারহ পিছনে ধাওয়া করেন একদল জনতা।

১) কোয়েনা মিত্র

মুম্বইয়ের এক পাঁচতারা হোটেলে নিউ ইয়ার পার্টিতে কোয়েনাকে ছেঁকে ধরেন একদল মদ্যপ যুবক। সে সময় নিরাপত্তারক্ষীরা ছিলেন না। কোয়েনার শরীরের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন তারা। এই ঘটনা সংবাদমাধ্যমে বড় করে কভার করা হয়।