Sunday , December 16 2018
Breaking News

আমি ছোট পোশাক পরে যা দেখিয়েছি তা কি শাবনুর, পপি দেখায়নাই? খোলামেলা সাক্ষাৎকারে মুনমুন আরও বলেন…

‘মুনমুন’ ঢাকাই চলচ্চিত্রের এক সময়ের বেশ আলোচিত একটি নাম। ১৯৯৭ সালে মৌমাছি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র অঙ্গনে যাত্রা শুরু তার। ১৯৯৭-২০০৩ সাল পর্যন্ত বেশ দাপটের সাথেই অভিনয় করেছেন এই নায়িকা। আলোচোনায় থাকার পাশাপাশি হয়েছেন বেশ সমালোচিতও। আর তাই ২০০৩ সালের পরে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে অনেকটা গুটিয়ে নেন মুনমুন।

চলচ্চিত্র পাড়ার অনেকেই বলে থাকে সে সময় মুনমুনকে কেন্দ্র করেই অশ্লীলতা নির্ভর অ্যাকশন চলচ্চিত্র নির্মিত হতে শুরু হয়। তবে এ বিষয়টি মানতে নারাজ অ্যাকশন লেডি মুনমুন। চলচ্চিত্র থেকে বেশ কিছু দিন দূরে থাকলেও আবারো চলচ্চিত্র নিয়ে ব্যস্ত হয়েছেন এই নায়িকা। বিডি২৪লাইভের সাথে বেশ খোলামেলা কথা হলো। জানলেন তার নানা অজানা কথা।

কেমন আছেন ?
মুনমুনঃ এইতো সবার দোয়া আর আল্লাহ্‌র রহমতে বেশ ভালোই আছি।

নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন কখন থেকে?
মুনমুনঃ আমার কখনো নায়িকা হওয়ার ইচ্ছে ছিলো না। আমাকে এহতেসাম দাদু ফিল্মে এনেছে। দাদু যে সব নায়িকাকে ফিল্মে এনেছেন তাদের চেয়ে প্রায় পাঁচ ছয় কেজি ওজন বেশি ছিলো আমার। আমি দাদুর সহকারী হতে গেলাম দাদু আমাকে দেখে বললেন তুমি আমার ছবির নায়িকা। আমি বললাম এ স্বাস্থ্য নিয়ে কিভাবে। তিনি বলেন, এটা কোনো সমস্যা না, কমিয়ে ফেলো। তুমি পারবা। ওনার একটা নিয়ম ছিলো উনি যাকে দেখে একবার বলছে তুমিও নায়িকা হবা সে কিন্তু শেষ পর্যন্ত নায়িকা হইছে। প্রথম দেখায় উনি আমাকে ওই কথা বলায় আমার ভিতর একটা সাহস চলে আসে। সে কারণে হয়তো নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন তখন থেকে।

বেশ লম্বা সময় পর চলচ্চিত্রে ফিরেছেন। আর ফিরেই নেগেটিভ চরিত্রে কেন?
মুনমুনঃ আপনারা লক্ষ করলে হয়তো দেখবেন চলচ্চিত্রে অভিনয়ের শুরু থেকেই আমি অ্যাকশন ধর্মী ছবি করেছি। তাছাড়া সময়ের সাথে সাথে বয়সের ব্যাপার বলে তো একটা বিষয় আছেই। শুধু তাই নয় আমার বেশ আগে থেকেই ইচ্ছে ছিলো কিছু ছবিতে খল চরিত্রে অভিনয় করার। আর সে জন্য যখন এই চরিত্রটি করার অফার পেয়েছি সাথেসাথেই রাজি হয়ে গেলাম।

দর্শক আপনাকে অশ্লীল ছবির নায়িকা হিসেবেই জানেন, এটা কিভাবে দেখছেন?
মুনমুন: আপনারা সাংবাদিকরা অনেকে জানেন আবার অনেকে না জানার ভান ধরেন। ২০০৩ সালে আমি ফিল্ম ছেড়ে চলে গেলাম। এর পরের চারটা বছর অশ্লীলতায় ঘিরে ছিলো বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। এটার জন্য আপনি কয়জন শিল্পীকে দায়ী করবেন। যখন অশ্লীল সিনেমা শুরু হয় আমি তখন কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আমাকে কেউই কখনো বলেনি আমি অশ্লীল চলচ্চিত্রের নায়িকা।

আমার ছবি আপনারা দেখেন আমি যে ড্রেসগুলো পড়েছি আমি যেসব সিন করেছি তা কি অন্য নায়িকারা করেনি? শাবনুর দেখায়নাই? পপি দেখায়নি? সবাই এমন পোশাক পড়ছে। দোষ কেন মুনমুনের একার হবে?

আমি এটার জন্য অপমানিত হচ্ছি। পরে পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতি, প্রযোজক সমিতি সবাই আমার পক্ষে কথা বলছে। আজ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সবাই আমাকে ওয়েলকাম করছে। কারণ আমি অনেক লক্ষ্মী নায়িকা ছিলাম। কারণ আমি কোনো দাম দেখাইনি। সবাই আমাকে অনেক পছন্দ করেন। তাছাড়া আমাকে অশ্লীল হিসেবে পরিচিত করার পেছনে অনেক সাংবাদিক দায়ি। আমি নিজে বলবো না, ইউটিউবে অনেক ছবি আছে আমার আপনারই দেখেন কোনটা অশ্লীল।