Tuesday , October 16 2018
Breaking News

এখনো অক্ষত মরদেহ, হাসছে বলে দাবি ভক্তদের!‍

২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর না ফেরার দেশে চলে গেছেন তিনি। তাকে সমাহিতও করা হয়েছিল ধর্মীয় নিয়ম মেনে। কিন্ত ঠিক দু‌’মাস পরে তার মরদেহ কবর থেকে তোলা হলে অক্ষত অবস্থায় পাওয়া যায়।

থাইল্যান্ডের ব্যাংকক শহরের বৌদ্ধ ভিক্ষু লুয়াং ফোর পুয়ানের মরদেহ সেটি। তার ভক্তদের দাবি, ওই সময় হাসিমুখে দেখা যায় তাকে।

জন্মসূত্রে কম্বোডিয়ান এই সন্ন্যাসী জীবনের বেশিরভাগ সময় অতিবাহিত করেন মধ্য থাইল্যান্ডের লোপবুরি মঠে। আধ্যাত্মিক গুরু হিসেবে তার ব্যাপক খ্যাতি রয়েছে। ৯২ বছর বয়সে তিনি মারা গেলে যথোপযুক্ত মর্যাদায় মঠেই সমাহিত করা হয়।

এর ঠিক দু’মাস পরে ধর্মীয় রীতি মেনেই তার মরদেহ কবর থেকে তোলা হয়। তার ভক্তদের দাবি, দু’মাসে তার মরদেহ প্রায় অবিকৃত রয়েছে। এছাড়া তার মুখে এক আশ্চর্য হাসি লেগে রয়েছে, যা তার প্রয়াণের সময় ছিল না।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘দ্য মিরর’ তার ভক্তদের বরাত দিয়ে বলছে, মরদেহ যখন ধর্মীয় রীতি মেনে ভক্তদের সামনে দিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, তখনই তার মুখে এই সৌজন্যমূলক হাসি ফুটে ওঠে। থাইল্যান্ডের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, পিয়ানের দেহকে দেখে মনে হচ্ছিল বড়জোর ৩৬ ঘণ্টা আগে তার মৃত্যু হয়েছে।

বৌদ্ধ তত্ত্বকে সামনে রেখে ভক্তরা বলছেন, পিয়ান প্রকৃতই নির্বাণ লাভ করেছেন। এই হাসিই তার প্রমাণ। প্রয়াণ থেকে একশ দিন পরে আবার তাকে সমাহিত করা হবে। ততদিন চলবে ভক্তদের নিরবচ্ছিন্ন প্রার্থনা।

সূত্র : দ্য মিরর