Tuesday , November 13 2018
Breaking News

সাবধান! রাজধানীতে ভয়ঙ্কর রিকশাওয়ালা, প্রধান টার্গেট নারী

রিকশা নিয়ে যে যত কথাই বলুক না কেন, স্বল্প আয়ের মানুষের কাছে এর তুলনা নেই। যদিও রাজধানীতে রিকশায় ঘুরতে এখন পকেট বেশ গরম থাকতে হয়। রোদ-বৃষ্টি-ঝড় কিংবা শীতে তো তাদের পায়ে ধরা ছাড়া উপায় থাকে না। এর বাইরে হঠাৎ চমকে দেয় কিছু রিকশা চালক।

যারা ভাড়া নিয়ে বেশি দরদাম করবে না, অথবা দরদামের অভিনয় করে গন্তব্যস্থলে পৌছে দেওয়ার জন্য রাজি হয়ে যাবে। কিন্তু কেন? কম টাকায় রিক্সা জার্নির খুশি মনে নিয়ে যখনই রিক্সায় উঠবেন তখন অথবা কিছুদুর যাওয়ার পর খেয়াল করলে দেখবেন তারা মোবাইলে অথবা ইয়ারফোন ব্যবহার করে কথা বলছে। কথার ফাঁকে ফাঁকে কৌশলে তারা আপনার গন্তব্যস্থল, বর্তমান অবস্থান এবং কোন রাস্তা দিয়ে যাবে তার বর্ননা দিতে থাকবে অপর প্রান্তের ব্যক্তিটিকে।

কথা বার্তার ধরণ এমন হবে, যে আপনি ধরতেই পারবেন না কি হচ্ছে। এছাড়াও রিক্সাচালকের কথা বার্তায় যাত্রী তেমন একটা কান দেয়ও না। কথার ধরন এমন হতে পারে, ‘এইত অহন খিলগাঁও তালতলা আছি, যামু মগবাজার ওয়ারলেস; তুই বাইর হ। আমি খ্যাপ টা নামায় দিয়াই আইতাছি। না মৌচাক দিয়া যামু না রাস্তা খারাপ, ডাক্তারের গলি দিয়া বাইর হমু।’

এতক্ষণে হয়ত বুঝে গেছেন, রিকশাচালকের বেশে এরা আসলে ছিনতাইকারী চক্র। আর এদের প্রধান টার্গেট নারী এবং কম বয়সী ছেলে-মেয়েরা। আর প্রেমিক জুটি পেলে তো কথাই নেই। সুবিধামত স্থানে নিয়ে গিয়ে যেকোন ধরনের দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেলতে পারে। নির্জন রাস্তা, সরু গলি আর মানুষের আনাগোনা যেখানে কম থাকে সে সময় গুলো এদের টার্গেটে থাকে। আপনি যেদিক দিয়ে যেতে বলেন, এরা যাবে না, বিভিন্ন অজুহাত দেখাবে।

এরা চিপা গলিতে হেঁটে কিংবা মোটরবাইক ব্যাবহার করে থাকে ছিনতাই করতে। আপনার বিশ্বাস অর্জন করতে মাঝে মাঝে এদের মধ্যে কেউ কেউ হুঁশিয়ারও করবে। যেমন, ‘আপা ব্যাগটা ধইরা বহেন। এহানে অনেক ছিনতাই অয়’।

এই পদ্ধতিতে ছিনতাই করা যায় নিরাপদে, সহজে এবং সুযোগ বুঝে। তাই এরকম পরিস্থিতি অনুমান করা মাত্র রিকশা থেকে নেমে পড়ুন। বিপদের গন্ধ পেলে রিকশাচালককে বুঝতেই দেবেন না। কোনো একটা অজুহাত দেখিয়ে বা কিছু কেনার কথা বলে কোনো দোকানে ঢুকে পড়ুন। কিংবা মানুষ যেখানে বেশি আছে সেদিকে চলে যান। এরপর পুলিশ বা নিকটাত্মীয়দের ফোন দিন। শুধু রিকশা নয়; সিএনজিতেও এমন ঘটনা অহরহ ঘটে থাকে। সুতরাং সতর্ক হোন, সাবধানে থাকুন। সূত্র: ডিবিপুলিশবিডি