Wednesday , August 22 2018
Breaking News

আজ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণে চা‌ঁদের এমন রুপ দেখা যাবে, জেনেনিন কোন সময় দেখা যাবে!

জীবদ্দশায় মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী হতে চান ? তাহলে অবশ্যই সন্ধ্যার আকাশ থেকে চোখ সরাবেন না। হ্যাঁ আজই ঘটতে চলেছে ইতিহাস। চাঁদের তিন তিনটি রূপ একসঙ্গে খালি চোখে প্রত্যক্ষ করতে পারবেন সবাই। বিজ্ঞানের পরিভাষায় যাকে বলা হয়েছে সুপার-ব্লু ও ব্লাড মুন। কলঙ্ক বিনে চাঁদ যে সুন্দরীতমা তাও দেখতে পাবেন আজই। গোধূলি পেরিয়ে প্রায় ১৪ শতাংশ বড় হয়ে আপনার চোখে ধরা দেবে চন্দ্রমা। লালিত্যে ভরপুর চাঁদ আজ রাঙাবউটি সাজবে। লাবণ্যের সঙ্গে ছলকে পড়বে রক্তবর্ণ আভা। ১৫২ বছর পর গোটা পৃথিবীর বেশ কয়েকটি প্রান্ত থেকে চন্দ্রমা আজ সুপার-ব্লু ও ব্লাড মুন।

বলাবাহুল্য, জানুয়ারির মাসের একতারিখেই ছিল পূর্ণিমা। শীতের ঝকঝকে আকাশে গোটা চাঁদকে দেখেছি। আবার ৩১ তারিখেও পূর্ণিমা। একমাসে সচরাচর এদৃশ্য চোখে পড়ে না। তাই বুধবার বিকেল মানেই ‘ব্লু মুন’। এবার চাঁদ হাঁটি হাঁটি পায়ে পৃথিবীর অনেকটা কাছে চলে আসছে। পূর্ণচন্দ্রের যে আকৃতি আমরা দেখি, তার থেকে প্রায় ১৪ শতাংশ বড় আকারের চাঁদকে দেখব। তাই ‘সুপার মুন’। অন্যদিকে চাঁদ যখন আজ অন্তরালে যাবে, তখনও পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে মিশে থাকবে সূর্যের আভা। সেই আভা চাঁদের গায়েও পড়বে। লালচে তামাটে আভায় বর্ণিল হয়ে উঠবে চন্দ্রমা। সেজন্যই ‘ব্লাড‘ মুন।

উল্লেখ্য, ৩৫ বছর আগে ‘সুপার’, ‘ব্লু’ ও ‘ব্লাড’ মুনের সাক্ষী হয়েছিল এশিয়া মহাদেশ। ১৯৮২-র ৩০ ডিসেম্বর ভারতের আকাশে রক্তাভ নিয়ে ধরা দিয়েছিল চাঁদ। আজ আবারও সে আসছে। বিকেল ৫.১৭ মিনিট থেকে দেখা যাবে সুপার ব্লু মুন। অন্যান্য দিনের তুলনায় চাঁদকে তখন অনেকটাই বড় ও উজ্জ্বল দেখাবে। ৬.২১ থেকে ৭.৩৭ পর্যন্ত চলবে গ্রহণ। সেই সময়টা আকাশে ব্লাড মুন দেখা যাবে। এরপরেও রাত ৮.৪১ মিনিট পর্যন্ত আংশিক গ্রহণ চলবে। বিকেল ৪টে ২০মিনিট থেকেই তাঁরা এই দৃশ্য দেখার সুয়োগ পাবেন। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, সাইবেরিয়া, নিউজিল্যান্ড, উত্তর পশ্চিম আমেরিকা, কানাডা থেকেও চাঁদের এই অভিনব রূপ আজ খালি চোখে দেখা যাবে।