Saturday , September 22 2018
Breaking News

জ্ঞান ফিরেই শাওন জিজ্ঞেস করেন, আমার বউ কই?

নেপালে ইউএস-বাংলার বিমান দুর্ঘটনায় চল্লিশ শতাংশ দগ্ধ শরীর নিয়ে অজ্ঞান ছিলেন ডা. রেজওয়ানুল হক শাওন। অবশেষে মঙ্গলবার সকালে জ্ঞান ফিরলে শাওন তার বাবা মোজাম্মেল হককে জিজ্ঞেস করেন, আমার বউ কই? জবাবে তার বাবা মৃত্যুর খবরটি লুকিয়ে বলেন, শশীকে অন্য একটি হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আরটিভি অনলাইনের সাথে শাওনের পরিবারের আলাপকালে বিষয়টি জানা যায়। আজ মঙ্গলবার সকালে নেপালে পৌঁছেছেন ডা. শাওনের বাবা।

গতকাল নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনায় মারা গেছেন তার স্ত্রী তাহিরা তানভিন শশী। কিন্তু গুরুতর আহত হয়ে শাওন নেপালের ওম হসপিটাল এন্ড রিসার্চ সেন্টারের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

স্বামী ডা. রেজওয়ানুল হক শাওনের (৩৬) সাথে পাশের সিটে বসে যাচ্ছিলেন তাহিরা তানভিন শশী(২৬)। নিজেদের সপ্তম বিয়ে বার্ষিকী পালন করবেন নেপালে, এই পরিকল্পনা ছিল তাদের। আগামী ১৭ মার্চ ছিল তাদের বিয়েবার্ষিকী। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলার ইচ্ছা ছিল সারাজীবন। সব স্বপ্ন ধূলিসাৎ করে দিলো ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা।

মানিকগঞ্জ শহরের লঞ্চঘাট এলাকার ডা. রেজা জামানের একমাত্র মেয়ে শশী। শশী ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিমিনোলজি বিভাগে মাস্টার্স করছিলেন।

শশীর স্বামী শাওনের গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের সাঁটুরিয়া উপজেলায় গোপালপুর গ্রামে। তার বাবার নাম মোজাম্মেল হক। তিনি কিছুদিন আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপপরিচালক হিসেবে চাকরি থেকে অবসর গ্রহণ করেন। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে শাওন সবার বড়।
ডা. রেজা জামানের মেয়ে শশীর সঙ্গে ডা. শাওনের বিয়ে হয় বছর সাতেক আগে। তাদের কোনো সন্তান নেই। রেজওয়ানুল হক শাওন রংপুর মেডিকেল কলেজে কর্মরত আছেন।