Monday , August 20 2018
Breaking News

৫ কারণে সম্পূর্ণ ত্যাগ করুন মিষ্টি খাবার

চিনি কিংবা অন্য কোনো মিষ্টিজাতীয় খাবার আপনার বহু ধরনের স্বাস্থ্যগত ক্ষতির জন্য দায়ী। আর এসব ক্ষতি থেকে বাঁচতে হলে কেবল চিনিই নয়, কৃত্রিম চিনি থেকে তৈরি খাবারও বাদ দিতে হবে।
মিষ্টির কিছু নেতিবাচকতা নিয়েই আজকের আয়োজন—
১. স্মৃতিশক্তির ক্ষতি
অতিরিক্ত মিষ্টি খাবার-পানীয় বা চিনি খেলে স্মৃতিশক্তির ক্ষতি হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার কারণে দেহে যথেষ্ট পরিমাণ ইনসুলিন উত্পন্ন হতে পারে না। এতে মস্তিষ্কের অনেক কার্যক্রম বদলে যায়। ফলে মস্তিষ্কের স্মৃতিশক্তি নষ্ট করে—এমন রোগের আশঙ্কা বেড়ে যায়।

২. ধূমপানের ক্ষতি বাড়ায়
ধূমপানের স্বাস্থ্যগত ক্ষতির বিষয়টি অনেকেই জানেন। চিনি সিগারেটের এ ক্ষতিকে আরো বাড়িয়ে দিতে পারে। তামাক অনেক সময় এর স্টার্চকে চিনিতে রূপান্তরিত করে। এমনকি চিনি ধূমপায়ীদের আরো ধূমপানে উৎসাহী করে তোলে। চিনি বেশি খেলে ধোঁয়া ফুসফুসের আরো গভীরে পৌঁছে এবং তা বেশি ক্ষতিকর হয়ে ওঠে।

৩. ক্যান্সার
অতিরিক্ত চিনির কারণে ক্যান্সারের আশঙ্কা বেড়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। এ ক্ষেত্রে ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্সকে মূল কারণ হিসেবে তুলে ধরছেন তাঁরা। এ পরিস্থিতিতে কোষগুলো ইনসুলিনের সঙ্গে সঠিকভাবে কাজ করে না। তাতে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা তৈরি হয় এবং একপর্যায়ে নানা ধরনের ক্যান্সার সৃষ্টি করে।

৪. নেশা
চিনি খাওয়া এক ধরনের নেশা। এটি আমাদের মস্তিষ্ক ও দেহের নানা রাসায়নিককে উজ্জীবিত করে। এতে আমরা আরো বেশি পরিমাণে চিনি গ্রহণে আগ্রহী হয়ে উঠি।

৫. হৃদরোগ
অতিরিক্ত চিনি খেলে তা দেহে বাড়তি ইনসুলিনের কারণ হয়ে ওঠে। গবেষকরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ইনসুলিন দেহের নার্ভাস সিস্টেমের ওপর প্রভাব ফেলে। এতে রক্তচাপও বেড়ে যায়। বাড়তি রক্তচাপ থেকে হতে পারে নানা হৃদরোগ।