Saturday , September 22 2018
Breaking News

ভালো থেকো মা, নেপাল থেকে তোমার কোলে ফিরব

মা তোমাকে দেখার জন্য মনটা অস্থির হয়ে আছে, হিয়ার জন্য বড় চিন্তা হয়। বাসায় কাজের বুয়া ছাড়া ওকে দেখার কেউ নেই। আনানের (স্বামী) যন্ত্রণায় জীবনটা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। আমি আর পারছি না, ভাবছি বাসা ছেড়ে দেব। সিদ্ধান্ত নিয়েছি হিয়াকে তোমার কাছে রেখে আসব। জীবনে অনেক কষ্ট করেছি। কিন্তু হেরে যেতে শিখিনি। ভালো থেকো মা, নেপাল থেকে তোমার কোলে ফিরব…।’ ফ্লাইটে যাওয়ার আগে রোববার রাতে মা নীলা জামানের সঙ্গে এভাবে ফোনে কথা বলেন কেবিন ক্রু শারমিন আক্তার নাবিলা। সোমবার কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত ইউএস-বাংলা বিমানের কেবিন ক্রু ছিলেন নাবিলা। বিমান বিধ্বস্তে তিনিও নিহত হয়েছেন। ইয়ানা ইমাম হিয়া নামে তার আড়াই বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। মঙ্গলবার যুগান্তরের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে নাবিলা ও তার মেয়ে হিয়া সম্পর্কে নানা বিষয় তুলে ধরেন নাবিলার মা নীলা জামান।

সন্তান হারানোর বেদনা, নাতনির অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ ও নাবিলার সংগ্রামী জীবনযুদ্ধের চিত্র তুলে ধরে নীলা জামান বলেন, নাবিলা অনেক শান্ত স্বভাবের ছিল। ওর সহ্যক্ষমতা ছিল অনেক। সবকিছু সে ঠাণ্ডা মাথায় ম্যানেজ করতে পারত। অশ্র“সিক্ত নয়নে তিনি বলেন, তার মেয়ে সংগ্রাম করে জীবনে বড় হয়েছে। নাবিলা ছোট্টবেলায় তার বাবাকে হারিয়েছে। ছোটবেলা থেকেই পড়ালেখায় ভালো ছিল নাবিলা। তার শখ ছিল বিমানে কাজ করার। কিন্তু মেয়ের কপালে সুখ সইল না।

বিমান দুর্ঘটনার পরপরই হিয়াকে নিয়ে পালিয়ে যায় কাজের বুয়া। পরে স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ মিরপুর থেকে হিয়াকে উদ্ধার করে। হিয়া এখন তার নানি নীলা জামানের কাছে রয়েছে। নাতনি হিয়ার কথা উল্লেখ করে নীলা জামান বলেন, হিয়ার বাবা আনান আহমেদ মাদকাসক্ত। কিন্তু নাবিলা সন্তানের দিকে তাকিয়ে সংসার ত্যাগ করেনি। আনান এখন জেলে। নীলা জামান বলেন, হিয়ার অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কথা ভাবতেই বুক ভারী হয়ে আসছে আমার। তিনি বলেন, সন্তান হারানোর বেদনা কাউকে বোঝানো যায় না। আমার মেয়ে আমার কোলে আর কোনোদিন ফিরবে না। চিরদিনের জন্য সন্তানকে হারালাম। তিনি বলেন, একদিকে মেয়ে হারানোর বেদনা অন্যদিকে নাতনি অপহরণ- সবকিছু মিলিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছিলাম।

নীলা জামানের সঙ্গে যখন কথা হয় তখন দাদির কোলে ছিল হিয়া। নীলা জামান বলেন, ঘুমানোর আগে হিয়া মা বলে চিৎকার করছে, আবার ঘুম থেকে উঠেই মায়ের কথা জিজ্ঞাসা করছে। ওকে সান্ত্বনা দেয়ার ভাষা আমাদের নেই। আমরা বড় অসহায়।

এই হারানোর ব্যথা পূরণ হওয়ার নয়। বড় কষ্টের, বড় বেদনার।

নাবিলার বাবার মৃত্যুর পর এসএম রফিকুজ্জামান নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে নীলা জামানের বিয়ে হয়। ব্যবসায়ী রফিকুজ্জামানের ঘরে নাবিলার বোন সামারা আবেদিন ও ভাই রাইয়ান আবেদিনের জন্ম। নাবিলার বাবার বাড়ি চাঁদপুরে।

মিরপুর থেকে হিয়াকে উদ্ধার : মঙ্গলবার বিকালে মিরপুর-১১ নম্বর কেএফসির পাশে এক খালার বাসা থেকে হিয়াকে উদ্ধার করেছে উত্তরা-পশ্চিম থানা পুলিশ। থানা থেকে তাকে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

উত্তরা-পশ্চিম থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) শাহ আলম জানান, সোমবার ইউএস-বাংলা উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার খবর প্রকাশের পরপরই শিশুটি হারিয়ে যাওয়ার অভিযোগ আসে। এ ব্যাপারে হিয়ার নানি নীলা জামান থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এসআই আরিফুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন একটি টিম তাকে মঙ্গলবার উদ্ধার করে।

জিডিতে বলা হয়, হিয়ার বয়স আড়াই বছর। উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার খবরের পরপরই তিনি উত্তরায় নাবিলার বাসায় গিয়ে তা তালাবদ্ধ দেখতে পান। তিনি কোথাও হিয়ার খোঁজ পাচ্ছেন না