Friday , December 14 2018
Breaking News

আকাশ থেকে এসব কি পড়ছে ! সবাই বলছে এমন দৃশ্য বাংলাদেশে প্রথম দেখা (ভিডিও সহ )

জেলার কালীগঞ্জ ও হাতীবান্ধা উপজেলায় শিলা বৃষ্টি এবং লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী ও পাটগ্রাম উপজেলায় হালকা শিলা বৃষ্টিসহ ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। আকাশ কালো মেঘে ঢেকে থাকায় এবং থেমে থেমে বৃষ্টিপাতের ফলে অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে লালমনিরহাট জেলা।

শুক্রবার সকাল থেকে শুরু হয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় (এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত) পর্যন্ত বৈরী আবহাওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। তবে জেলার কোথাও প্রাণহানির মতো কোনও খবর পাওয়া যায়নি। সবজি ক্ষেতসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে লালমনিরহাট কৃষি বিভাগ।

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবল শিলা বৃষ্টি আর ঝড়ে পাকা গম ও আমের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১১টায় আধ ঘণ্টার ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে মাটির খড়ের তৈরি কাঁচা বাড়িঘরেরও ক্ষয়ক্ষতির কথা জানা গেছে।

কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টি ও ঝোড়ো বাতাস গরম ও ধুলাবালি থেকে মানুষকে স্বস্তি এনে দিলেও কৃষকের ক্ষতি হয়েছে।ঝড়ে জেলার ৫টি উপজেলার তিন হাজার ঘরবাড়ি ভেঙ্গে পড়ার খবর পাওয়া গেছে বিভিন্ন সূত্রে। সড়কে গাছপালা ভেঙে পড়ে ও বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ায় জনজীবন ও যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটেছে।

পঞ্চগড় জেলার সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশি শিলাবৃষ্টি পড়েছে। এ উপজেলার হাড়িভাসা, হাফিজাবাদ, কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকার হাইব্রিড টমেটো ও তরমুজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝরে গেছে আম ও লিচু বাগানের গাছের মুকুল। এছাড়া গম ও ভূট্টা ক্ষেতেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

শুক্রবার ভোর থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হয়। এই সময় প্রচুর পরিমাণে শিলাবৃষ্টি পড়ে। জেলা সদরে ৩৭ মিলিমিটার শিলাবৃষ্টি রেকর্ড করে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।