Sunday , July 22 2018
Breaking News

অতিরিক্ত উত্তরপত্র চাওয়ায় এ কী কাণ্ড শিক্ষকের! এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিয়ে করার পরামর্শ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে এইচএসসি পরীক্ষা হলে অতিরিক্ত উত্তরপত্র চাওয়াকে কেন্দ্র করে মেয়ে পরীক্ষার্থীদেরকে আপত্তিকর কটূক্তি করায় শিক্ষক-অভিভাবকমহলে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে অধ্যক্ষের কক্ষে বিক্ষোভ করে অভিভাবকসহ পরীর্ক্ষার্থীরা।

জানা যায়, গতকাল সোমবার দুপুরে চিলমারী ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে বাংলা পরীক্ষা চলাকালীন দুজন শিক্ষক মেয়ে শিক্ষার্থীদের উত্তরপত্র না দিয়ে তাদেরকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ না করে বিয়ে করার জন্য আপত্তিজনক মন্তব্য করেন। এ ধরনের কটূক্তিতে ক্ষুব্ধ হয়ে মেয়েরা হলেই কান্নাকাটি শুরু করে।

পরে তারা পরীক্ষা হল থেকে বের হয়ে এলে কেন্দ্রটির অ্যাকাডেমিক সুপারভাইজার আবদুল হালিম বিষয়টি সুরাহা করার আশ্বাস দিয়ে পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্রসহ হলে ফেরৎ পাঠান।

পরীক্ষা শেষে অভিভাবকরা বিষয়টি জানতে পেরে অভিযুক্ত শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে অধ্যক্ষের কক্ষে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এসময় কেন্দ্রটির ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্র সচিব আবদুল হাকিম ঘটনার সুষ্ঠু সমাধানের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

অভিযুক্ত পরীক্ষক আরাতুজ্জামান লতিফ ও কবিরুল ইসলাম কবির এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। ওই হলের কয়েকজন মেয়ে পরীক্ষার্থী অভিযোগ করেন, স্যাররা তাদেরকে অতিরিক্ত উত্তরপত্র না দিয়ে বিভিন্ন অপমানজনক কথাবার্তা বলেন। এক পর্যায়ে তাদেরকে পরীক্ষা না দিয়ে বিয়ে করার পরামর্শ দেন।

তাদের এ ধরনের মন্তব্যে হতবাক পরীক্ষার্থীরা জানান, শিক্ষকরা এ ধরনের মন্তব্য করায় তারা খুবই কষ্ট ও লজ্জা পেয়েছেন।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে চিলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মির্জা মুরাদ হাসান বেগ জানান, অভিযোগটি পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।