Monday , December 17 2018
Breaking News

মেয়েরা জিনস পরলে ‘হিজড়া’ সন্তান প্রসব করতে পারে!

বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মেয়েদেরই জিনস পরতে দেখা যায়। কিন্তু জিনস পরা নিয়ে এক ভয়ংকর কথা বলেছেন ভারতের কেরলেন অধ্যাপক রজিত কুমার। যা শোনার পর মেয়েরা অবাক হয়ে যাবেন।

রজিত কুমার দাবি করেন, মেয়েরা জিনস পরলে ‘হিজড়া’ সন্তান প্রসব করতে পারেন। এখানেই শেষ নয়। শুধু জিনসই নয়, যে কোনো পুরুষ পোশাক ব্যবহার করলেই এমনটি হতে পারে বলে তিনি দাবি করেছেন।

বোটানির এই অধ্যাপক যেমন তেমন জায়গাতে নয় রীতিমতো পড়ুয়াদের নিয়ে সচেতনতার ক্লাস করে তিনি এমন দাবি করেছেন।

বর্তমান সমাজে এখন তো খুব অল্প বয়স থেকেই মেয়েরা জিনস পরেন। তবে এমন ধরনের বিপদের কথা তো কেউ কখনো বলেনি! কিন্তু কেরলের কাসারাগড়ের ওই অধ্যাপক এমনটাই দাবি করেছেন ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, ওই অধ্যাপক বলেছেন, ‘যে সব নারীরা জিনস, শার্ট ইত্যাদি পুরুষ পোশাক পরেন তারা হিজড়া সন্তান প্রসব করেন।’

তিনি দাবি করেন, কেরলে ৩ লাখেরও বেশি ‘হিজড়া’ রয়েছে।

বোটানির ওই অধ্যাপক এখানেই থেমে থাকেননি। জীবন শৈলী তার বিষয় না হলেও তা নিয়ে অনেক অনেক বিস্ময়কর দাবি করেছেন। সে সব দাবি কতটা বৈজ্ঞানিক তা নিয়েই যথেষ্ট প্রশ্ন রয়েছে। অথচ নির্দ্বিধায় তিনি সচেতনতা তৈরি করতে বলেছেন, ‘যে সব দম্পতির জীবনযাপন নারী, পুরুষ বিভাজন মেনে তারাই শুধু ভাল সন্তানের জন্ম দিতে পারে।’

রজিত কুমারের দাবি মতে, ‘অসৎ চরিত্রের বাবা-মায়ের সন্তান অটিস্টিক বা সেরিব্রাল পালসির মতো অসুখে ভোগে থাকেন।’ এ রকমও দাবি করেন তিনি।

এবারই প্রথমবারের মতো এমন কথা বলেন তেমনটি নয়। এ রকম অদ্ভুত ভাবনার কথা আগেও তিনি বিভিন্ন সমাবেশে তুলে ধরেছেন।

এর আগে, তিরুঅনন্তপুরমে একটি মেয়েদের কলেজে গিয়েও এমন সব কথা বোঝান বোটানির অধ্যাপক রজিত কুমার।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, এ কারণে বিভিন্ন সময়ে মেয়েদের সমালোচনার মুখেও পড়তে হয়েছে তাকে। তবু তিনি থেমে থাকেনি। ওই অধ্যাপকের ‘সচেতনতা সভা’য় মেয়েরা দল বেঁধে বেরিয়ে গেলেও অদম্য ছিলেন।

এর আগে মেয়েদের পোশাক নিয়ে সমাজের বিভিন্ন জন নানা মন্তব্য করেছেন। তারা নির্যাতনের জন্য মেয়েদের পোশাককে দায়ীও করেছেন। কিন্তু জিনস পরা প্রসঙ্গে এই রকম চমকপ্রদ ‘হিজড়া’ তত্ত্ব শুধু মাত্র অধ্যাপক রজিত কুমারই দিলেন।